HomeBlogs

  বাংলাদেশ বনাম পাকিস্তান | অর্থনীতিতে কোন দেশ শক্তিশালী ?Bangladesh vs Pakistan Economy comparison.
2020-10-21
Apk

Download বাংলাদেশ বনাম পাকিস্তান | অর্থনীতিতে কোন দেশ শক্তিশালী ?Bangladesh vs Pakistan Economy comparison.


Additional Information

Scroll Down And Click To Continue Button For Complete This Task



বাংলাদেশকে তলাবিহিনী ঝুঁড়ি বানিয়েছে পাকিস্তানই। কিন্তু অর্থনৈতিক ও সামাজিক ক্ষেত্রে পাকিস্তান’কে টক্কর দিতে বাংলাদেশ প্রস্তুত।

বাংলাদেশের এমন কোনো ভূরাজনৈতিক সম্পদ নেই যা কিনা আমেরিকা, চীন বা সৌদি আরবের কাছে বিক্রিযোগ্য। দেশটির নেই কোনো পারমাণবিক অস্ত্র, খুবই শক্তিশালী কোনো বাহিনী নেই। তবে আছে দেশ’কে এগিয়ে নেওয়ার মতো গতিশীল নেতৃত্ব, উন্নত দেশ গড়া তীব্র আকাঙ্খা।

অপরদিকে, 6ষ্ঠ পরমাণু শক্তিধর দেশ হওয়া শর্ত্বেও বর্তমানে দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে ভঙ্গুর অর্থনৈতিক অবস্থা পাকিস্তানের। বিশ্বব্যাংক, আইএমএফ ও চীনা ঋণে আটকা পড়ে বর্তমানে হাবুডুবু খাচ্ছে পাকিস্তান। ইমরান খান প্রশসান যদিও অর্থনীতি পুনঃউদ্ধারে ব্যপক কর্মযজ্ঞ চালাচ্ছে। মোটকথা পাকিস্তানের অর্থনীতির জন্য তেমন ভালো কোন সুখবর নেই বললেই চলে।

বাংলাদেশ আর পাকিস্তান আজকে ভিন্ন দু’টি দেশ কারণ তারা তাদের জাতীয় স্বার্থকে সম্পূর্ণ ভিন্ন চোখে দেখে।

বাংলাদেশ নিজের ভবিষ্যৎ দেখে মানবসম্পদ উন্নয়ন ও অর্থনৈতিক অগ্রগতিতে। দেশটি রপ্তানি বৃদ্ধি, বেকারত্ব হ্রাস, স্বাস্থ্যসেবার উন্নয়ন, ঋণ ও সাহায্যের ওপর নির্ভরতা হ্রাস, ক্ষুদ্র ঋণ আরও ছড়িয়ে দেওয়া, ইত্যাদি লক্ষ্যবস্তু ঠিক করেছে।

তাই সামনে এগিয়ে যেতে হলে পাকিস্তানকে অবশ্যই নিজের যুদ্ধ-অর্থনীতিকে বদলে শান্তি-অর্থনীতিতে রূপান্তর করতে হবে।

বাংলাদেশ বনাম পাকিস্তান | অর্থনীতিতে কোন দেশ শক্তিশালী ? Bangladesh vs Pakistan Economy comparison.

হ্যালো বন্ধুরা আজকে এই পোস্টটিতে আমরা বাংলাদেশ বনাম পাকিস্তানের অর্থনৈতিক বিশ্লেষণ তুলে ধরব যার মধ্যে GDB, মাথাপিছু আয়,কেন্দ্রীয় ব্যাংকের রিজার্ভ, সহজ ব্যবসা সূচক পরিস্থিতি ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য থাকবে তাই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন।

পাকিস্তানের প্রতিযোগিতা শুধুমাত্র ভারতের সীমান্তে যুদ্ধের অথবা অর্থনীতিতে স্বাধীনতার 70 বছর পরও পাকিস্তান তার অর্থনীতিতে সুগঠিত করতে পারেনি। অপরদিকে বিশ্ব বলছে, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নতি হচ্ছে লাফিয়ে লাফিয়ে তকমা জুটেছে অর্থনৈতিক উন্নয়নশীল দেশের রোল মডেল এবং সারা বিশ্বের দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনৈতিক দেশর একটি হিসাবে। দক্ষিণ এশিয়ার এশিয়ান টাইগার বলা হচ্ছে এই বাংলাদেশকে।

এ পর্যায়ে দেখুন পাকিস্তান বনাম বাংলাদেশের অর্থনৈতিক পরিসংখ্যান। পাকিস্তানের জনসংখ্যা প্রায় 20 কোটি আর বাংলাদেশের জনসংখ্যা প্রায় 16 কোটি।

পাকিস্তানের কাগজী মুদ্রা কে বলা হয় রুপি আর বাংলাদেশের এটা টাকা নামে পরিচিত।

পাকিস্তানের জিডিপি প্রায় 312 বিলিয়ন মার্কিন ডলার, অপরদিকে বাংলাদেশের জিডিপি প্রায় 314 বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

2019 সালে পাকিস্তানের জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার 3.3 শতাংশ অপরদিকে বাংলাদেশের মোট দেশজ উৎপাদন প্রবৃদ্ধির হার 8.13 শতাংশ।

নমিনাল জিডিপির ভিত্তিতে পাকিস্তানের বর্তমান অর্থনীতি বিশ্বের 42 তম অপরদিকে বাংলাদেশের অর্থনীতি বিশ্বে 39 তম।

আবার purchase power parity (PPP) ক্রয় ক্ষমতা সূচকে পাকিস্তানের অর্থনীতি বিশ্বে 24 তম অপরদিকে এই তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান 29 তম।

2019 সালের প্রাক্কলিত হিসেব অনুযায়ী পাকিস্তানের গড় মাথাপিছু আয় 1580 মার্কিন ডলার অপরদিকে বাংলাদেশের গড় মাথাপিছু আয় হাজার 909 মার্কিন ডলার।

পাকিস্তানের মোট এক্সটার্নাল ঋণের পরিমাণ 106 বিলিয়ন মার্কিন ডলার অপরদিকে বাংলাদেশের এক্সটার্নাল ঋণের পরিমাণ 33 বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

পাকিস্তানের গড় মাথাপিছু ঋণের পরিমাণ প্রায় 1122 ডলার অপরদিকে বাংলাদেশের গড় মাথাপিছু ঋণের পরিমাণ প্রায় 600 ডলার।

পাকিস্তানের মুদ্রাস্ফীতির হার প্রায় 11 শতাংশ অপরদিকে 2019 সালের প্রাক্কলন হিসাবে বাংলাদেশের মুদ্রাস্ফীতির হার প্রায় 5.56 শতাংশ।

বিশ্ব ব্যাংক ease of doing business লিস্টে পাকিস্তানের অবস্থান 108 তম অপরদিকে বাংলাদেশের অবস্থান 168 তম। অর্থাৎ বাংলাদেশ এক্ষেত্রে অনেক পিছিয়ে আছে।

পাকিস্তানের মানুষের গড় আয়ু 66 বছর অপরদিকে বাংলাদেশের মানুষের গড় আয়ু 72.5 বছর।

পাকিস্তানের প্রায় 41.20 শতাংশ মানুষ দরিদ্র অপরদিকে বাংলাদেশে এই সংখ্যা প্রায় 18.5 শতাংশ।

পাকিস্তান মানব উন্নয়ন সূচকে 189 দেশের মধ্যে 150 তম অপরদিকে বাংলাদেশ মানব উন্নয়ন সূচকে 136 তম অবস্থানে আছে।

নারী-পুরুষ সমতায়নে বিশ্বের 149 দেশের মধ্যে পাকিস্তান 148 তম অপরদিকে এই তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান 48 তম। ইন্টারন্যাশনাল লেবার অর্গানাইজেশন (ILO) এশিয়া প্যাসিফিক এম্প্লয়মেন্ট এবং সোশ্যাল আউট লুক 2018 তে উল্লেখ করা হয় পাকিস্তানের বেকারত্বের সংখ্যা 6.14 শতাংশ অপরদিকে বাংলাদেশের বেকারত্বের সংখ্যা 4.29 শতাংশ।

2019 সালে পাকিস্তানের মোট রপ্তানির পরিমাণ 24 বিলিয়ন মার্কিন ডলার একই সময় পাকিস্তান মোট আমদানি করেছে 52 বিলিয়ন মার্কিন ডলার এর পণ্য। অপরদিকে 2018-19 অর্থবছরের 55.44 বিলিয়ন মার্কিন ডলার এর পণ্য আমদানি করেছে বাংলাদেশ একই সময় রপ্তানি থেকে আয় হয়েছে 39.94 বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

পাকিস্তানের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ প্রায় 8 বিলিয়ন মার্কিন ডলার অপরদিকে বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ প্রায় 30 বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

2019 সালে পাকিস্তানের সরাসরি বৈদেশিক বিনিয়োগের পরিমাণ 900 মিলিয়ন ডলার অপরদিকে বাংলাদেশের সরাসরি বৈদেশিক বিনিয়োগের পরিমাণ 3.61 বিলিয়ন ডলার।

বাংলাদেশ এবং পাকিস্তানের সম্পূর্ণ ভিন্ন দুটি দেশ এবং তারা তাদের জাতীয় স্বার্থকে আলাদা করে দেখে। বাংলাদেশ তাদের ভবিষ্যৎ দেখে মানব সম্পদ উন্নয়ন এবং অর্থনৈতিক অগ্রগতিতে। দেশটির রপ্তানি বৃদ্ধি, বেকারত্ব হ্রাস, স্বাস্থ্য সেবা উন্নয়ন, ঋণ ও সাহায্যের ওপর নির্ভরতা হ্রাস, ক্ষুদ্রঋণের আলো ছড়িয়ে দেয়া ইত্যাদি লক্ষ্যবস্তু ঠিক করেছে।

তাই পাকিস্তানকে সামনে এগিয়ে যেতে হলে অবশ্যই যুদ্ধ, অর্থনীতি বদলে শান্তির অর্থনীতিতে রূপান্তরিত করতে হবে।

বাংলাদেশের বৃহৎ প্রতিবেশী ও দক্ষিণ এশিয়ার আরেক দেশ ভারত। ভারতের অর্থনীতির আকার অনেক বড়। কিন্তু আকারে ছোট হলেও বর্তমান বাংলাদেশ কিছু কিছু ক্ষেত্রে ভারতকেও পেছনে ফেলেছে।

পরবর্তী পোস্টে বাংলাদেশ বনাম ভারত এর অর্থনীতি নিয়ে আর্টিকেল লিখা হবে।

পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাদের সবাইকে ধন্যবাদ। আর আপনারা যদি অন্য কোন দেশের সাথে বাংলাদেশের অর্থনীতির তুলনামূলক বিশ্লেষণ চান তাহলে কমেন্ট করে জানিয়ে দিন।

Please Wait 30 Sec For Continue

You may also like

Photo Mix2

 কিভাবে Waphosts.com এ সাইট খুলবেন?

  ➡️ Blogs


wp untitled 32488

 আপনারাও পড়ে ভয় পাবেন। আমার সাথে ঘটে যাওঢ়া ঘটনা।

  ➡️ Blogs


beautiful island 240x320

 নিয়ে নিন Https://Wapone.Cf এই সাইটের থিম।

  ➡️ Blogs


beautiful island 240x320  VLX894wMrsiu

 কবিতা চোরপুরুষ

  ➡️ Blogs


beautiful island 240x320  IV5rZDNuP2G0

 সততার কাজ করলে উপকার কি?

  ➡️ Blogs


Make A Comment

Download Your Favorite Games And Apps Free
© 2020 - 2022 Mload.Xyz